মা দিবস

মা দিবস না থাকলেও তাকে ভুলে থাকা যায় না!

আজ ছিলো মা দিবস। মা দিবস হবার কারনে সবাই কম বেশি মায়ের খবর নিচ্ছেন। মা’কে ভালবাসার চেষ্টা করছেন। কিন্তু মায়েদের বেলায় দেখুন। তারা বছরের সব দিনেই তার সন্তানের কথা ভাবেন। কখন কে কী করছে, কিভাবে থাকছে কী খাচ্ছে আরো কত কী। মায়েদের জীবন শেষ হয়ে যায় সন্তানের জীবনের শুরু হয়। মায়েরা যখন তখন তাদের সন্তানদের দেখতে চান, কিন্তু দেখতে পারেন কী?

মা দিবস যদি এতই কাজের হতো তবে মায়ের জন্য তার সন্তানদের সব সময় তার কাছেই থাকতে দিতে হতো। সেটাও সম্ভব নয়। কাজের টানে, আয়ের টানে মানুষকে কত জায়গায় চলে যেতে হয়। মায়েদেরও কত জায়গায় যেতে হয়। সব কিছুই হচ্ছে আসলে কমার্সিয়াল। সবাই ছোটে অর্থের খোঁজে। আবেগের অবস্থান কোথায়?

তবু মা দিবস নাম শুনলেই একটা আবেগ চলে আসে। কমার্সিয়াল এই দুনিয়ায় কত কিছু নিয়েই তো বানিজ্য হয়। দিবসগুলো সব সময়ই বানিজ্যিক। পন্য বেচাকেনার জন্য নানান দিবসে নান ইভেন্ট আর নানা কর্মকান্ড নিয়ে মাতামাতি করে মানুষের কাছে চলে আসেন বানিজ্যিক  প্রতিষ্ঠানেরা। হোকনা বানিজ্যিক কিছু, তবুও তো মাকে নিয়ে লেখা হয় কিছু কথা। মাকে নিয়ে ভাবেন কিছু মানুষ। মায়ের কষ্ট ভেবে কিছু নতুন পদক্ষেপও নেন।

এভাবেই মা দিবস কিংবা যে কোন দিবস আমাদের জন্য কিছু করে যায়, ছোঁইয়া দিয়ে যায় আবেগ জাগিয়ে দিয়ে শুধরে যাবার দিকে নজর কাড়ে।